হাইমচর প্রতিনিধি

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের ভাবমূর্তি ও প্রধানমন্ত্রী বিরুদ্ধে অপপ্রচারকালে এক বিএনপির নেতাকে প্রতিহত করলো ছাত্রলীগ কর্মীরা, এতে করে নাটকিয় আহত সাজিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে নিজের দায়ভার উল্টো দিকে দেবার চেষ্টা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা যায় চাঁদপুর জেলার হাইমচর উপজেলার ৬ নং চরভৈরবী ইউনিয়ন আমতলী এলাকায় রোববার বেলা ১১ টার সময় বাজার সংলগ্ন স্কুলের সামনে ৫ নং হাইমচর ইউনিয়ন ৯ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মোঃ আজগর হাওলাদার পিতা মৃত ওহাব আলী হাওলাদার আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বাংলাদেশ সরকার প্রধান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দল কে নিয়ে অপপ্রচারসহ নানাহ গালমন্দ করার সময় পথিমধ্যে উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা রিমন সরদার তাকে এহেন কর্মকাণ্ডে প্রতিবাদ জানালে, আজগর আরো ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিবাদকারি রিমন সরদার উপর কিল গুশি শুরু করলে, রিমন সরদার নিজেকে রক্ষা করতে প্রতিহত কালে উভয়ের মধ্যে হাতাহাতিকালে এলাকার লোকজন এসে ছারিয়ে দেয়, পরে আজগর নিজেকে বাঁচাতে হাইমচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে ভর্তি হন এবং আইনের হাত থেকে বাঁচতে নিজেকে আহত হিসেবে প্রচার করতে আক্তারুজ্জামান হাওলাদার এর ফেবুকে এসে মিথ্যা বানোয়াট অপপ্রচার চালায়, এতে করে ছাত্রলীগ সহ জননেত্রী শেখ হাসিনা কে অপমানিত করে, তাই আমরা তাহার অপপ্রচার এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। একই সাথে এই অপপ্রচার কারির কঠিন শাস্তির বিচারের দাবি করছি।

এছারাও এই বিএনপি নেতা আজগরের বিরুদ্ধে পূর্বে বহু ঘটনা রয়েছে তাহার অপকর্মের শিকার অনেকেই, চুরি থেকে শুরু করে এমন কাজ নেই সে না করেছে, গোপনীয় সুত্রে জানা যায়, আজগর হাইমচর ইউনিয়নের সরকারি ঘরের লোহার এঙ্গেল চুরি করে বিক্রির অভিযোগ রয়েছে,। তাছারা হাইমচর উপজেলার সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা ফেরদৌসী বেগমের উপর হামলা ও মোবাইল ফোন সহ বেনেটিবেগ চুরি সহ নানাহ অপকর্মের সাথে জরিত থাকায় কারাবরণ করারও খবর পাওয়া গেছে। বর্তমানে সে ছাত্রলীগ কর্মীদের ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।
এ বিষয়ে আজগর হাওলাদার জানান আমি রাস্তায় দাড়িয়ে আছিলাম কিছু ছেলে আমার উপর অর্তিকিত হামলা চালায়। আমি এর সুষ্ঠ বিচার দাবী করছি।