February 1, 2023, 10:04 am
শিরোনাম:
টঙ্গীতে আদালতের বুঝিয়ে দেয়া জমিতে কাউন্সিলরের বাধা টঙ্গীতে গাজীপুর মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাথে কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের পরিচিতি ও মতবিনিময় সভা হাইমচরে মাদক বিরোধী ৮ম বার্ষিক মিনি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রকল্প পরিচালক মো. গোলাম ইয়াজদানীর ওপর হামলার প্রতিবাদ হাইমচরে মানববন্ধন সুইড বাংলাদেশ জামালপুর শাখার কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত জামালপুরে মহাত্মা গান্ধীর ৭৫তম তিরোধান দিবস পালিত হাইমচরে এমজেএস বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের নিয়োগ পরিক্ষা সর্ম্পন্ন ফরিদগঞ্জে অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ে বিশেষ ক্যাম্পেইন হাইমচরে আদালতে নিষেধাজ্ঞা অন্যমান্য ভবন নির্মানের অভিযোগ ফরিদগঞ্জ এ আর পাইলট মডেল উবি এক্স স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনের যাত্রা শুরু

ফরিদগঞ্জে সন্তানের জন্য আর্থিক সহায়তার অগ্রগতি জানতে চাওয়ায় সমাজসেবা অফিসের সহায়কের প্রতি উত্তর প্যাদানি খাইছেন…..?

Reporter Name

ফরিদগঞ্জ চাঁদপুর প্রতিনিধি:

ক্যান্সারে আক্তান্ত সন্তানের জন্য আর্থিক সহায়তার আবেদনের দেড় মাস অতিবাহিত হওয়ার পর আবেদনের অগ্রগতি কতটুকু হলো তা জানার জন্য সমাজসেবা অফিসে গিয়ে জিজ্ঞেস করতেই সমাজসেবা অফিসের সহায়কের প্রতি উত্তর, প্যাদানি খাইছেন…..?।

গতকাল ফরিদগঞ্জ উপজেলা সমাজসেবা অফিসে গিয়ে ক্যান্সারে আক্রান্ত সন্তানের আর্থিক সহায়তার আবেদনের অগ্রগতি জানতে চাওয়ায় রুহুল আমীনকে এমন প্রতি উত্তর শুনতে হয়েছে ওই অফিসের অফিস সহকারী ফজলে বারীর কাছ থেকে।

সমাজসেবা অফিসে গিয়ে ফজলে বারীর কাছে বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি এমন বাক্য ব্যবহার করেছেন বলে দায় শিকার করে বলেন, তিনি কথাটি ওই অফিসের অপর অফিস সহকারীকে বলেছেন। ঘটনা ক্রমে সেই অফিস সহায়ককে জিজ্ঞেস করলে তিনি এমন কোন কথা শুনেন নি বলে জানান (যদি সমাজসেবা অফিসারের রুমে গিয়ে তার কথার সুর পাল্ট যায়) এমন বক্তব্যের পর পুরো স্পষ্ট হয় ফজলে বারী তথ্য জানতে চাওয়া রুহুল আমীনকেই উদ্দেশ্য করে এমন কথা বলেছে।

শুধু প্যাদানি খাইছেন তাতেই খান্ত হননি ওই অফিসের কর্মকর্তারা। ঘটনার এক পর্যায়ে কারিগরি ইন্সট্টক্টর স্মৃতি রানী ভুক্তভোগী রুহুল আমীনকে অফিস থেকে বের হয়ে যেতে বলেন এবং তাকে বের করতে চেষ্টা করেন।

ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যে যাওয়া হয় উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মাহমুদুল হাসান এর কাছে, রুহুল আমীনের সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি সম্পর্কে তাকে অবগত করার পর তিনি অভিযুক্ত ফজলে বারীর সহ অফিসের অন্যান্য কর্মকর্তাদের ডেকে আনেন এবং এমন বাক্য ব্যবহার করেছেন কি না তিনি তার সত্যতা যাচাই করেন, পরে এই সংবাদকর্মীকে তিনি জানান, আমার অফিসে কে কি প্রয়োজনে আসলো সেটা বড় কথা নয়, আমার অফিসে কারো সাথে অস্বাভাবিক আচরণের করার অধিকার আমি কাউকে দেই নি,এটা যদি উনাকে বলা হয় তাহলে এর ব্যবস্থা আমরা নিবো।

এ বিষয়ে চাঁদপুর জেলা সমাজসেবা কর্মকতা রজব শুভ্র সাহার কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন ল, এ ধরণের আচরণ কখনোই কাম্য নয়, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে আমরা এর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার তছলিমু নেছাকে বিষয়টি জানালে তিনি বলেন, আপনারা যেহেতু আমাকে বিষয়টি জানিয়েছেন, বিষয়টি আমি খোঁজ নিয়ে ঘটনার সত্যতা পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


ফেসবুক পেজ