1. haimcharbarta2019@gmail.com : haimchar :
  2. saikatkbagerhat@gmail.com : Saikat A : Saikat A
বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৮:০৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
হাইমচরে উপজেলা প্রশাসনে শোক দিবস পালন এমপি মুরাদকে অভ্যর্থনা জানাতে প্রখর রোদে দাঁড় করানো হলো শিক্ষার্থীদের ফরিদগঞ্জে সিআইপি জালাল আহমেদের উদ্যোগে শোক দিবস পালন হাইমচরে কৃষি মেলা উদ্বোধন ফরিদগঞ্জে অধিক সংখ্যক কমিউনিটি ক্লিনিকে পালন হয়নি শোক দিবস শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফরিদগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা জামালপুরে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্যে দিয়ে জাতীয় শোক দিবস পালিত বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে তারা বাঙালি জাতির ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও অগ্রযাত্রাকে স্তব্ধ করার অপপ্রয়াস চালায় ——– আলহাজ্ব ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া টাঙ্গাইলে একাধারে টানা সম্মাননা পুরস্কার পেলেন ডিবি দক্ষিণের (ও.সি) মোঃ দেলোয়ার হোসেন। জামালপুরে জাতীয় শোক দিবস পালিত

ফরিদগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদ উন্নয়ন সহায়তা তহবিল প্রকল্পে নিম্ন মানের ঢালাইয়ের কাজ

  • আপডেট টাইম: সোমবার, ৪ জুলাই, ২০২২
  • ৪২ বার দেখা

মেহেদী হাছান ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি :

উপজেলার ৪নং সুবিদপুর (প.) এলাকায় ইউনিয়ন পরিষদ উন্নয়ন সহায়তা তহবিলের অর্থায়ানে করা একটি রাস্তা যাচ্ছে-তাই ভাবে করে যাচ্ছে ঠিকাদার। দেখার কেউ নেই।

প্রকল্পটির নাম ‘উত্তর চৌরাঙ্গা জামাল পাটওয়ারী বাড়ির অভিমুখে রাস্তা সিসি ঢালাইকরণ।’ ঠিকাদার রাস্তাটি তার খেয়াল খুশি মত করে যাচ্ছে। অভিযোগেরভিত্তিতে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়,নিম্ন মানের শুরকী,প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম ব্যবহার করছে সিমেন্ট। ৩ ইঞ্চি ঢালাই দেয়ার কথা থাকলেও ১ ইঞ্চি দিয়ে কাজ সেরে নিচ্ছেন ঠিকাদার। এলাকাবাসীর অভিযোগ ঠিকাদার ইমাম হোসেন বর্তমান চেয়ারম্যানের ভাই হওয়াতে ইচ্ছা মত কাজ করে যাচ্ছে।

একই প্রকল্প হলেও দুই বাড়ির দু’টি রাস্তা হচ্ছে। একটি রাস্তা একদিন আগে (৩ জুন) করেছেন। একদিন পরই বৃষ্টির পানিতে উপরের আস্তর খসে গিয়ে ইটের কনা
দৃশ্যমান হয়ে গেছে। নিম্ম মানের ঢালাই এর কারনে এই অবস্থা বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সচিবের অভ্যন্তরিন কাজের তদারকির কথা থাকলেও তিনি ঢালাই চলাকালিন সময় একটি বারের জন্যও প্রকল্প এরিয়া পরিদর্শন করেননি। মূলত তার গাফিলতের কারনেই এ সমস্যা হয়েছে বলে এলাকাবাসী মনে করেন।

কাজের তদারকি করা এক ব্যক্তির সাথে এ বিষয়ে কথা বলতে গেলে তিনি কথা না বলে এড়িয়ে যান। প্রকল্পের ঠিকাদার চেয়ারম্যানের ভাই মো. ইমাম হোসেনকে না পেয়ে তার মুঠো ফোনে কল দেয়া হয়। একাদিক কল দিয়েও তার সাথে যোগাযোগ করা যায়নি বলে বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে ৪নং সুবিদপুর ইউনিয়ন পরিষদ সচিব আমির হোসেন বলেন, ‘এই প্রকল্পের ঠিকাদার চেয়ারম্যানের ভাই। উনারাতো সঠিকভাবেই কাজ করার কথা।
সমস্যা নেই, পরীক্ষা-নিরিক্ষার পরই বিল পাস হবে।’
চেয়ারম্যান মো. মহসিন হোসেন বলেন, ‘আমি এখনো রাস্তার কাজ দেখিনি। দেখা ছাড়া কোনো বক্তব্য দিতে পারবো না।’

এ বিষয়ে কথা বলতে দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে গিয়ে তাকে না পেয়ে একাধিকবার তাঁর মুঠো ফোনে কল দিয়ে পাওয়া যায়নি। তাই তার বক্তব্যও নেয়া সম্ভব হয়নি।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও
হাইমচর বার্তা  ২০২২ © স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত।
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট @ Rahat IT Ltd.

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: রাহাত আইটি লিঃ