চাঁদপুা-৩(চাঁদপুর সদর ও হাইমচর) এবং চাঁদপুর-৪(ফরিদগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামীরীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য, চাঁদপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও চাঁদপুর-৪ ফরিদগঞ্জ আসনের সাবেক এমপি ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া (প্রতীক-ঈগল) বরেছেন, দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন অংশগ্রহণ মূলক এবং ভোটার উপস্থিতির জন্য নির্বাচন নয়, মন্ত্রী এমপিদের জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের আদালত। এই আদালতের পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হবেন, তারাই সত্যিকারের জনপ্রিয়, কর্মীবান্ধব নেতা বলে পরিচিত হবেন।

নির্বাচন একটি পরীক্ষালয়, এখানে জনগণের কাছে তার কৃতকর্মের জন্য জবাবদিহীতা করতে হয়। আওয়ামীলীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৬ নভেম্বর গণভবনে যেকথা বলেছেন, তার মর্ম অনেকেই বুঝেন নি। না বুঝেই নানা কথা বলছেন। তিনি ষ্পষ্ট বলেছেন, সকল জনপ্রিয় প্রার্থীকেই নৌকা দেয়া সম্ভব হয়নি। কিন্তু এর বাইরে স্বতন্ত্র পদে যারাই নির্বাচন করছেন , সকলেই আমাদের লোক। তাই নৌকা বা ঈগল প্রতীকের প্রার্থী সকলেই আমাদের।
তিনি আরো বলেন, চাঁদপুর-৪ ফরিদগঞ্জ আসনটি আজ মাদকে সয়লাভ। নিপিড়িত নির্যাতিত নেতাকর্মীদের জন্য এবং মাদকমুক্ত উপজেলা করার জন্য ৭ জানুয়ারী নির্বাচনে ঈগল প্রতীকের ভোটের জন্য বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রার্থনা করুণ। আপনারা নিশ্চিত জানুন ৭জানুয়ারী লোকচুরির নির্বাচন হবে না। জনগণের ভোটেই প্রকৃত নেতা নির্বাচিত হবে। এসময় তিনি তার নেতাকর্মীদের হয়রানি না করতে আইনশৃংখলা বাহিনীকে হুশিয়ার করে দেন।

মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) দুপুরে চাঁদপুর-৪ ফরিদগঞ্জ আসনের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ের উদ্বোধন শেষে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি একথা বলেন। এর আগে তিনি ১৩৫ সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন পরিচালনা কমিটির নাম ঘোষণা করেন।

নির্বাচন পরিচালনা কমিটির যুগ্মআহ্বায়ক জেলা আওয়ামীলীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা: হারুনুর রশিদ সাগর এর সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকারের পরিচালনায় এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি ছিদ্দিকুর রহমান পাটওয়ারী, অহিদুর রহমান পাটওয়ারী, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সম্বয়কারী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্মসম্পাদক ওয়াহিদুর রহমান রানা, যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা তোফায়েল আহমেদ, ইউপি চেয়ারম্যান শাহআলম শেখ, বুলবুল আহমেদ, কাউসারুল আলম কামরুল, এইচ এম হারুনুর রশীদ প্রমুখ।